১৩ আগস্ট ২০১৭, রবিবার

ডেনমার্কের সাবমেরিন থেকে নারী সাংবাদিক নিখোঁজ

Loading...

প্রথমবার্তা ডেস্ক, রিপোর্টঃ         ডেনমার্কের এক সাবমেরিন থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন এক নারী সাংবাদিক। তার কোন খোঁজ এখনো পাওয়া যায়নি। কিন্তু এরই মধ্যে পুলিশ সাবমেরিনটির মালিক এবং চালকের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ এনেছে।

 

 

 

 

 

গ্রেপ্তার হওয়া পিটার ম্যাডসেন অবশ্য তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের জবাবে বলেছেন, তিনি কোনো অপরাধ করেননি। ওই নারী সাংবাদিককে তিনি সাবমেরিন থেকে ঠিকমতো নামিয়ে দিয়েছিলেন।

 

 

 

 

 

 

ওই নারী সাংবাদিকের নাম কিম ওয়াল। তিনি নিউ ইয়র্ক টাইমস, দ্য গার্ডিয়ান এবং ভাইস ম্যাগাজিন সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে ফ্রি ল্যান্স সাংবাদিক হিসেবে কাজ করেন। তার রহস্যজনক নিখোঁজের ঘটনাটি নিয়ে ডেনমার্কে তুমুল আলোচনা চলছে। গত শুক্রবার কিম ওয়ালের সঙ্গী প্রথমে এ ঘটনা পুলিশকে জানান। তিনি বলেন, সাবমেরিনে স্বল্প সময়ের এই যাত্রার পর কিম ফিরে আসার কথা থাকলেও তখনো ফেরেননি।

 

 

 

 

 

জানা গেছে, যে সাবমেরিনটিতে চড়ে কিম ওয়াল গিয়েছিলেন সেটি যখন খুঁজে পাওয়া যায়, তখন সেটি পানিতে ডুবে গেছে।

 

 

 

 

 

সেটি থেকে সাবমেরিনটির মালিক এবং চালক পিটার ম্যাডসেনকে উদ্ধার করা হয়। কিন্তু সেখানে কিম ওয়ালকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি।

 

 

 

 

 

 

এও জানা গেছে, যে সাবমেরিনে চড়ে তিনি ঘুরতে গিয়েছিলেন সেটির নাম নটিলাস। কোপেন হেগেনের দক্ষিণে সাগরতলে এখন এটি পড়ে আছে। উদ্ধার কর্মীরা এটিকে টেনে তোলার চেষ্টা করছে।

 

 

 

 

 

 

এ ঘটনার ব্যাপারে ডেনমার্কের পুলিশ এখনো কিছু জানাচ্ছে না। কেন মৃতদেহ খুঁজে পাওয়ার আগেই তারা কিম ওয়াল খুন হয়েছেন বলে সন্দেহ করছে সেটা স্পষ্ট নয়।

 

 

 

 

 

উল্লেখ্য, পিটার ম্যাডসেনের ‘নটিলাস’ সাবমেরিনটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যক্তি মালিকানাধীন সাবমেরিন বলে দাবি করা হয়। কিম ওয়াল এই সাবমেরিনটি সম্পর্কে প্রতিবেদন লেখার জন্যই পিটার ম্যাডসেনের সঙ্গে সেটিতে চড়েন।

 

 

 

সূত্র : বিবিসি বাংলা

Loading...

You must be logged in to post a comment Login

মতামত

প্রতিদিনের সর্বশেষ সংবাদ পেতে

আপনার ই-মেইল দিন

Delivered by FeedBurner

[X]