১৭ জুলাই ২০১৭, সোমবার

‘কুম্বলে-দ্রাবিড়দের এই হেনস্তা প্রাপ্য ছিল না!’

Loading...

প্রথমবার্তা ডেস্ক, রিপোর্টঃ          তাঁর এক পত্রবোমায় কেঁপে উঠেছিল ভারতীয় ক্রিকেটের প্রশাসনের শক্ত ভিত। বাইরের জাঁকজকমের আস্তরণ পেরিয়ে অন্দরে ক্রিকেট মহল কতটা ফাঁপা, তা চিঠির ছত্রে ছত্রে দেখিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। ফের বিস্ফোরক ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহ।

 

 

 

 

 

এখন অবশ্য তিনি আর ভারতীয় ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত নন। কিন্তু সাফ জানিয়ে দিলেন, কুম্বলে-দ্রাবিড়-জাহিরদের মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের এ রকম প্রকাশ্য হেনস্তা প্রাপ্য ছিল না। ক্রিকেটীয় যুক্তিতে সফল কোচ অনিল কুম্বলে। তাও কেন সরতে হলো দেশের কিংবদন্তি ক্রিকেটারকে? কারণ, অধিনায়ক বিরাট কোহলির পছন্দের তালিকায় ছিলেন না কুম্বলে।

 

 

 

 

 

অধিনায়কের বেঁকে বসা এতটাই জোরাল ছিল যে, শেষমেশ অপমানিত হয়ে পদ থেকে সরেই যান কুম্বলে। উপদেষ্টা কমিটি কোচ নির্বাচন করতে বসে বিরাটের পছন্দ শাস্ত্রীতেই সিলমোহর দেয়। সঙ্গে বোলিং ও বিদেশে ব্যাটিংয়ে উপদেষ্টা হিসেবে জাহির খান ও রাহুল দ্রাবিড়কে নিযুক্ত করেন।

 

 

 

 

 

 

কিন্তু তা নিয়েও বিস্তর জলঘোলা। শাস্ত্রীর পছন্দ ভরত অরুণকে। এ নিয়ে এখনও নাটক অব্যাহত। এমনকি ক্ষুব্ধ উপদেষ্টা কমিটির সদস্যরাও পালটা চিঠি পাঠিয়েছেন বোর্ডকে।

 

 

 

 

 

 

এর মধ্যেই ফের বিস্ফোরক রামচন্দ্র গুহ। সাফ জানালেন, কুম্বলকে অপমানের মধ্যে দিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে যে ধারা চালু হয়েছে, তারই ভুক্তভোগী দ্রাবিড়-জাহিরের মতো সত্যিকারের বড় খেলোয়াড়রা।

 

 

 

 

 

 

 

তাঁদের যে কখনোই এ রকম হেনস্তা প্রাপ্য ছিল না, এমনটাই জানালেন তিনি।  একের পর এক টুইটে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এই ইতিহাসবিদ।

 

 

 

 

 

 

ভারতীয় ক্রিকেটের সঙ্গে দিনকয়েক যুক্ত থেকেই এর অন্দরের চালচিত্র বিলক্ষণ বুঝেছেন তিনি। আর তাই একের পর এক কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা যেভাবে অপমানিত হচ্ছেন, তা দেখার পর আর চুপ করে বসে থাকেননি।

 

 

 

 

 

 

প্রকাশ্যে যখন ক্রিকেটাররা অপমানিত হচ্ছেন, ক্ষোভের কথাও প্রকাশ্যেই জানালেন রামচন্দ্র গুহ।

Loading...

You must be logged in to post a comment Login

মতামত

প্রতিদিনের সর্বশেষ সংবাদ পেতে

আপনার ই-মেইল দিন

Delivered by FeedBurner