১৮ এপ্রিল ২০১৭, মঙ্গলবার

আপনার নাম প্রথম অক্ষর কি ‘B’? তাহলে আপনি তো অন্যরকম!

প্রথমবার্তা ডেস্ক, রিপোর্টঃ              সংখ্যাতত্ত্ব বা নিউমেরোলজি পাশ্চাত্য জ্যোতিষের এক গুরত্বপূর্ণ শাখা। এই বিদ্যা অনুযায়ী, প্রতিটি বর্ণের নিজস্ব মহিমা ও তরঙ্গ বর্তমান। সেই কারণে এক একটি বর্ণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির চরিত্রও এক এক রকমের হয়ে থাকে।

 

 

 

 

আপনার সব থেকে কাছের বর্ণ হল আপনার নাম ও পদবীর গোড়ায় থাকা অক্ষরটি। সেই কারণে নামের আদ্যক্ষর সংক্রান্ত নিমেরোলজিক্যাল বিশ্লেষণ সবিশেষ গুরুত্বপূর্ণ, একথা তাঁর বিখ্যাত গ্রন্থ ‘নিউমেরোলজি: দ্য কমপ্লিট গাইড টু আনভেইলিং দিয সিক্রেট মনিং বিহাইন্ড দ্য নাম্বার্স ইন ইওর লাইফ’-এ জানিয়েছেন সংখ্যাতত্ত্ববিদ সারা টমসন।

 

 

 

 

এবারের আলোচ্য বর্ণটি ইংরেজি বর্ণমালার দ্বিতীয় অক্ষর ‘B’, বাংলার অনুবাদ করলে দাঁড়ায় ‘ব’ বা ‘ভ’। এই অক্ষরটি যাঁদের নাম বা পদবীর গোড়ায় রয়েছে, তাঁদের সম্পর্কে এক বিস্তারিত বর্ণনা রাখে নিউমেরোলজি। আসুন জেনে নেওয়া যাক, কী জানায় এই প্রাচীন বিদ্যা।

Loading...

 

 

 

 

• ইংরেজি ‘B’ অক্ষরটির নিউমেরোলজিক্যাল মূল্যমান ২। এর দ্যোতনা, একই সঙ্গে আবেগ আর দ্বৈত সত্তার প্রভাব। আবার এই সংখ্যাটি প্রেমকেও ব্যক্ত করে। নাম বা পদবীর আদ্যক্ষরে ‘ব’ বা ‘ভ’-সম্পন্ন ব্যক্তিরা অবশ্যম্ভাবী প্রেমিক। নিদারুণ প্রেমিক।

 

 

 

 

• এমন নামের মানুষ সাধারণত সহমর্মী হন। অন্যের সাহায্যে আসতে পেরে তাঁরা ধন্য হয়ে যান বলে মনে করেন। সেদিক থেকে দেখলে, এঁরা প্রতারিতও আশাহতও হন খুব তাড়াতাড়ি।

 

 

 

 

• অন্যের যত্ন নিতে সদাতৎপর এই নামের মানুষ।

• কিন্তু, এটাও ঠিক এই নামের ব্যক্তিরা প্রায়শই মুখচোরা হন। মনের কথা খুলে বলেতে পারেন না বেশিরভাগ সময়ে।

 

 

 

 

• এঁদের চরিত্রের অন্যতম বৈশিষ্ট্য, এঁরা শান্তিপ্রিয়। চারপাশের সকলকে সুখী দেখতে এঁরা ভালবাসেন।

 

 

 

 

• এঁরা প্রায়শই ঘরকুনো। অনেক সময়ে এঁরাই অন্য মানুষের আশ্রয় হয়ে দাঁড়ান।

• নীরবে অন্য মানুষকে পথ দেখাতে এঁরা প্রস্তুত থাকেন।

 

 

 

 

Loading...

• এঁদের অন্যতম নেতিবাচক দিকটি এই— কোনও কোনও ক্ষেত্রে এঁরা লোভের বশবর্তী হয়ে অপরিনামদর্শী হয়ে পড়েন। তখন এঁদের সামনে আফশোস করা ছাড়া আর পথ থাকে না।

Loading...

মতামত

প্রতিদিনের সর্বশেষ সংবাদ পেতে

আপনার ই-মেইল দিন

Delivered by FeedBurner

[X]