১৫ এপ্রিল ২০১৭, শনিবার

নদী শুকিয়ে উদ্ধার হল ১০০০ শিবলিঙ্গ

 

 

 

 

প্রথমবার্তা ডেস্ক, রিপোর্টঃ    কথায় আছে ‘বিশ্বাসে মিলায় বস্তু , তর্কে বহুদূর’। ঈশ্বরে যাদের বিশ্বাস আছে, তারা তো এই ঘটনা শুনলে অবাক হবেনই। আর যারা বিশ্বাস করেন না তারাও এড়িয়ে যেতে পারবেন না।

 

 

 

 

 

 

কিছুদিন আগে একটি নদী শুকিয়ে গিয়ে ভেসে উঠল হাজারটি শিবলিঙ্গ। এই নদীটি হল কর্ণাটকের শালমালা নদী। এখন এই নদী সহস্রলিঙ্গ নামেও পরিচিত। হাজারটি লিঙ্গ ভেসে ওঠার ফলেই এর এমন নাম।

 

 

 

 

 

 

 

উত্তর কর্ণাটকের সিরসি থেকে ১৭ কিলোমিটার দূরে, এই এলাকায় দেখতে পাওয়া যায় এই এই শিবলিঙ্গগুলি। প্রত্নতত্ত্ববিদ্‌রা মনে করেন ১৬৭৮-১৭১৮ সালে সিরসির রাজা সদাশিবরাই এই শিবলিঙ্গ গুলি তৈরি করেছিলেন। তিনি ছিলেন বড় শিবভক্ত। তাই শিবের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতেই এই উদ্যোগ নিয়েছিলেন তিনি।

 

 

 

 

 

 

 

 

এই শিবলিঙ্গ গুলি ঘিরে ছিল পাথরের ষাঁড়ের মূর্তি। মহাদেবের বাহন ষাড় বলেই এই মূর্তি গুলিও বানিয়েছিলেন এই রাজা। তিনি মনে করতেন এই ষাড়ের মূর্তিগুলি অমূল্য শিবমূর্তি গুলিকে রক্ষা করবে।

 

 

 

 

 

রাজা সদাশিবরাই এর মৃত্যুর পর এই শিবলিঙ্গগুলি শালমালা নদীর গ্রাস করে নেয়। ফোলে এতবছর এই মূর্তি গুলি মানুষের সামনে আসেনি। ঢাকা পড়েছিল।

 

 

 

 

 

 

 

এখন তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে জল শুকিয়ে গেছে নদীটির। তাই আবার উদ্ধার হয়েছে এই প্রাচীন মূর্তিগুলি।

You must be logged in to post a comment Login



মতামত

প্রতিদিনের সর্বশেষ সংবাদ পেতে

আপনার ই-মেইল দিন

Delivered by FeedBurner