২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, সোমবার

রাবিতে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের ব বাঁধায় নিয়োগ পরীক্ষা পন্ড


রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য বাসভবন অবরোধ করে মৌখিক পরীক্ষা আটকে দিয়েছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। সোমবার দুপুর তিনটা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে মতিহার থানা আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরা অবস্থান নিলে চাকরী প্রার্থীরা মৌখিক পরীক্ষা না দিয়েই ফিরে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুর তিনটার দিকে মতিহার থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দীনের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন নেতাকর্মী রাবি উপাচার্য বাসভবনের মূল ফটকের সামনে অবস্থান নেয়। এরপর বিকেল চারটার দিকে কয়েকজন চাকরীপ্রার্থী মৌখিক পরীক্ষার জন্য উপাচার্য বাসভবনের ভেতরে ঢুকতে চাইলে নেতা-কর্মীরা বাঁধা দিয়ে তাদের ফিরে যেতে বলেন নেতা-কর্মীরা।

মতিহার থানা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মো. ইলিয়াস অভিযোগ করে বলেন, ‘সোবহান স্যারের সময়ের ১টি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিকে অন্যায্যভাবে সিন্ডিকেটে বাতিল করে দেয়া হয়। পরে আবার নতুন করে দেয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জামায়াত-শিবিরের লোকজনদের নিয়োগ দিচ্ছে। তারা তাদের মনোনীত প্রতিনিধিদের দিয়ে মনোনীত প্রতিক্রীয়াশীল প্রার্থীদের নিয়োগ দিতে চাইছে।’

Loading...

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক চাকরীপ্রার্থী বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজকে আমাকে মৌখিক পরীক্ষার জন্য আসতে বলা হয়। আমি বিকেল চারটায় আমি মৌখিক পরীক্ষা দেয়ার জন্য উপাচার্য বাস ভবনে যাচ্ছিলাম। কিন্তু ফটকে অবস্থানরত আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মীরা আমাকে বলেন আজকে ভাইভা হবে না। তারা আমাকে ফিরে যেতে বলেন। তারপর আমি ফিরে যাই।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক মো. মজিবুল হক আজাদ খানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি আগামীকাল অফিসে গিয়ে তাঁর সঙ্গে কথা বলতে বলেন।

জানতে চাইলে রাবি উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন বলেন, ‘দুই মাস আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরে কর্মকর্তা পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। তার জন্য মৌখিক পরীক্ষায় আজ ৬/৭ জনকে ডাকা হয়েছিল। কিন্তু স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের বাঁধায় তাদের মৌখিক পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হয় নি।’

‘জামায়াত-শিবিরের লোকজনদের নিয়োগ দেয়া হচ্ছে’ এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপাচার্য বলেন, ‘আমরা স্বচ্ছ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। আমরা যোগ্যতার ভিত্তিতে লোকবল নিয়োগ দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু রাষ্ট্র বিরোধীদের নিয়োগ দেয়ার কোন প্রশ্নই ওঠে না।’

Loading...



মতামত

প্রতিদিনের সর্বশেষ সংবাদ পেতে

আপনার ই-মেইল দিন

Delivered by FeedBurner

[X]